আল হাসানাইন (আ.)

প্রবন্ধ

হযরত আলী (আ.)
হযরত আলী (আ.) এর অবিস্মরণীয় একটি ভাষণ : খোৎবাতুল ঘাররা

হযরত আলী (আ.) এর অবিস্মরণীয় একটি ভাষণ : খোৎবাতুল ঘাররা

সমস্ত প্রশংসা আল্লাহর,যিনি সবকিছু থেকে সুউচ্চ-মহান এবং তাঁর নেয়ামতের মাধ্যমে সৃষ্টির অতি নিকটবর্তী । তিনিই সকল পুরস্কার ও সম্মান দাতা এবং সকল দুর্যোগ ও দুঃখ-কষ্ট মোচনকারী। তাঁর লাগাতার রহমত ও প্রাচুর্যপূর্ণ নেয়ামতের জন্য আমি তাঁর প্রশংসা করি। আমি তাঁর প্রতি ইমান আনি যেহেতু তিনিই আদি এবং তিনিই একমাত্র সত্য। আমি তার কাছে হেদায়েত যাচনা করি,যেহেতু তিনিই নিকটতম এবং তিনিই সৎপথ প্রদর্শক। আমি তাঁর সাহায্য প্রার্থনা করি,যেহেতু তিনিই সর্বশক্তিমান এবং তিনিই শ্রেষ্ঠ পরাভূতকারী। আমি তাঁর ওপর নির্ভর করি,যেহেতু তিনিই অভাব মোচনকারী এবং তিনিই শ্রেষ্ঠ পরিপোষক। আমি সাক্ষ্য দিচ্ছি মুহাম্মদ (সা.) তাঁর বান্দা ও রাসূল। তিনি তাঁকে পাঠিয়েছিলেন তাঁর আদেশ পৃথিবীতে জারি করার জন্য ও ওজর খতম করার জন্য এবং অনন্ত শাস্তি সম্পর্কে সতর্কাদেশ প্রদান করার জন্য।

আল্লাহর একত্ববাদ
খোদার অস্তিত্বের প্রমাণসমূহ

খোদার অস্তিত্বের প্রমাণসমূহ

কার্যের অস্তিত্ব কারণের উপর নির্ভরশীল এবং উক্ত কারণের শর্তাধীন, যদি এ নিয়মতান্ত্রিকতা সার্বজনীন বলে মনে করা হয়, তবে কখনোই কোন কিছু অস্তিত্ব লাভ করবে না। কারণ, নির্ভরশীল অস্তিত্বের সমষ্টি, অপর কোন অস্তিত্ব অর্থাৎ যার উপর তাদের অস্তিত্ব নির্ভর করে, তা ব্যতীত অস্তিত্বে আসার ধারণা বিবেক সম্পন্ন হতে পারে না...

আল্লাহর একত্ববাদ
খোদা পরিচিতি কী এবং এতে পৌঁছার সরল ও সহজ পথ কী?

খোদা পরিচিতি কী এবং এতে পৌঁছার সরল ও সহজ পথ কী?

সত্যানুসন্ধিৎসু ব্যক্তির জন্যে সর্বপ্রথমেই যে প্রশ্নটি উপস্থাপিত হয় এবং সর্বাগ্রেই যার সঠিক উত্তর জানতে হয় তা হল, খোদার অস্তিত্ব আছে কিনা? আর এ প্রশ্নের উত্তর পাওয়ার জন্যে বুদ্ধিবৃত্তিকে প্রয়োগ করতে হবে, যাতে করে চূড়ান্ত সিদ্ধান্তে পৌঁছা যায়–চাই তার ফল হোক ইতিবাচক অথবা নেতিবাচক।...  

কোরআনের তাফসীর
সূরা আত তাওবা; (১৪তম পর্ব)

সূরা আত তাওবা; (১৪তম পর্ব)

আল্লাহতালা ধনীদের সম্পদে গরীবের অধিকার সংরক্ষণ করেছেন। ধনীরা যদি ঠিকমত যাকাত আদায় করে তাহলে সমাজে দারিদ্র অভাব অনটন এত বেশি দেখা দিত না। আসলে যাকাত সম্পদের ভারসাম্য এবং ধনী-দরিদ্রের মধ্যকার ব্যবধান কমিয়ে আনে। এ ছাড়া যাকাত প্রদানের ফলে মানুষের মনে দানশীলতা এবং ভালোবাসার এক স্বর্গীয় অনুভূতি জাগ্রত হয়। ফলে দুনিয়াদারী এবং বৈষয়িক বিষয়ে মানুষের ঝোঁকপ্রবণতা নিয়ন্ত্রিত হয়। কাজেই দারিদ্র বিমোচন এবং সামাজিক ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠার ক্ষেত্রে যাকাত হচ্ছে অত্যন্ত কার্যকরী এবং ফলপ্রদ একটি ইসলামী বিধান।

কোরআনের তাফসীর
সূরা আত তাওবা; (১৩তম পর্ব)

সূরা আত তাওবা; (১৩তম পর্ব)

আসলে অনেক কিছুই বাহ্যিকভাবে কল্যাণকর মনে হলেও বাস্তবে তা অকল্যাণই বয়ে আনে। সন্তানসন্ততি ও সম্পদ আল্লাহর নেয়াতম হলেও অনেকের ক্ষেত্রেই দেখা যায় এসব প্রশান্তি ও কল্যাণকর হয়ে ওঠে না।

আল্লাহর ন্যায়পরায়ণতা
আল্লাহ্‌র ন্যায়পরায়ণতা

আল্লাহ্‌র ন্যায়পরায়ণতা

আল্লাহ্‌র পূর্ণতার গুণাবলীর দাবি এই যে, বিশ্ব এমনভাবে সৃষ্টি হবে যাতে সম্মিলিতভাবে সম্ভাব্য সর্বাধিক পূর্ণতা ও কল্যাণ অর্জিত হয়। আর এখানেই মহান আল্লাহর জন্যে প্রজ্ঞা ( حكمت ) বা কল্যাণচিন্তার ভিত্তিতে কর্ম সম্পাদন নামক গুণটি প্রতিপন্ন হয়। আর সকল কিছুকে যথাস্থানে সংস্থাপন অথবা সকল কর্মকে উপযুক্তরূপে সম্পন্ন করণই হল ‘আদল’ বা ন্যায়কর্ম। আল্লাহর আদল ও প্রজ্ঞার দাবী হল এই যে, সকল মানুষকেই তার যোগ্যতানুসারে দায়িত্ব প্রদান করা। অতঃপর তার স্বাধীন নির্বাচন ক্ষমতা ও প্রচেষ্টার আলোকে তার বিচার করণ এবং পরিশেষে তার কর্মফলস্বরূপ তাকে পুরস্কৃত বা তিরস্কৃত করা।  

কোরআন বিষয়ক জ্ঞান
কোরআন বিকৃতি মুক্ত

কোরআন বিকৃতি মুক্ত

কোরানের ত্রুটিমুক্ততাকে সর্বপ্রথমে কোরানে কোন কিছু সংযোজিত হওয়ার বিষয়টিকে বুদ্ধিবৃত্তিক দলিলের মাধ্যমে প্রমাণ করা যেতে পারে। অতঃপর আমাদের হাতে বিদ্যমান এ কোরান যে, মহান আল্লাহর পক্ষ থেকেই এসেছে তা প্রমাণিত হওয়ার পর পবিত্র কোরানের আয়াতের মাধ্যমে এ থেকে কোন কিছু হ্রাস বা ঘাটতি না হওয়ার বিষয়টি প্রমাণ করা যেতে পারে।

ধর্ম এবং মাযহাব
আল্লাহর নবীদের সংখ্যা

আল্লাহর নবীদের সংখ্যা

ইতিহাসের সাক্ষানুসারে আল্লাহর অসংখ্য নবীই এ পৃথিবীতে এসেছেন । পবিত্র কুরআনও এ বিষয়েরই সাক্ষী দেয় । যাদের মধ্যে অনেকের নাম ও ইতিহাসই পবিত্র কুরআন উল্লেখ করেছে । আবার তাদের অনেকের নামই পবিত্র কুরআনে উল্লেখিত হয়নি ।

এরফান
ইসলাম এবং আধ্যাত্মিকতা

ইসলাম এবং আধ্যাত্মিকতা

মহানবী (সা.)-এর সাহাবীদের মধ্যে (‘ইলমে রিজালে’র গ্রন্থসমূহে প্রায় বারো হাজার সাহাবীর পরিচিতি লিপিবদ্ধ হয়েছে) একমাত্র হযরত ইমাম আলী (আ.)-এর পাঞ্জল বর্ণনাই ‘ইরফানি’ বা আধ্যাত্মিক নিগূঢ়তত্ব সম্পন্ন এবং আধ্যাত্মিক জীবনের স্তরসমূহের সাথে সংশ্লিষ্ট,যা ইসলামের এক অমূল্য সম্পদ ভান্ডার ।  

কোরআনের তাফসীর
সূরা আত তাওবা; (১১তম পর্ব)

সূরা আত তাওবা; (১১তম পর্ব)

আসলে ধর্মীয় ও সামাজিক আচার অনুষ্ঠান দিয়ে প্রকৃত মুমিন-মুত্তাকী যাচাই করা সম্ভব নয়। একমাত্র জিহাদের ময়দানেই প্রকৃত মুমিন মুত্তাকী চেনা সম্ভব। যিনি প্রকৃত মুত্তাকী বা পরহেজগার তিনি জিহাদের ময়দানে অবর্তীর্ণ হবেন এতে কোনো সন্দেহ নেই।  

আপনার মতামত

মন্তব্য নেই
*
*

আল হাসানাইন (আ.)