আল হাসানাইন (আ.)

প্রবন্ধ

কোরআনের তাফসীর
সূরা ইউনুস;(৬ষ্ঠ পর্ব)

সূরা ইউনুস;(৬ষ্ঠ পর্ব)

মহান আল্লাহ মানুষকে চিন্তার স্বাধীনতা দিয়ে সৃষ্টি করেছেন এবং ভালো-মন্দ বোঝার ক্ষমতা দিয়েছেন। কাজেই যারা ভালোকে গ্রহণ করবে পরিণতিতে তারা হবে সতকর্মশীল, এর বিপরীতে অন্য আরেক দল মানুষের অস্তিত্ব থাকবে যারা হবে অন্যায় ও অসত্যের ধ্বজাধারী  

কোরআনের তাফসীর
সূরা ইউনুস;(৫ম পর্ব)

সূরা ইউনুস;(৫ম পর্ব)

একত্ববাদ বা একজন স্রষ্টার প্রতি বিশ্বাস হচ্ছে মানুষের সহজাত প্রবৃত্তি। এই আয়াতে বলা হয়েছে, ভোগ বিলাসিতা এবং পার্থিব জগতের চাকচিক্য মানুষের এই সহজাত প্রবৃত্তিকে ম্লান করে দেয়। কিন্তু মানুষ যখন চরম কোন সংকটে পড়ে এবং আশা-ভরসার কিছু পায় না তখন তার মধ্যকার সুপ্ত ওই প্রবৃত্তি আবার জেগে ওঠে। তখন সঙ্কট থেকে মুক্তি পাওয়ার আশায় সে মন থেকে আল্লাহকে ডেকে ওঠে এবং তার সাহায্য কামনা করে।  

আল্লাহর একত্ববাদ
তাওহীদের অর্থ ও প্রকারভেদ

তাওহীদের অর্থ ও প্রকারভেদ

তাওহীদ বা একত্ববাদকে তাত্ত্বিক ও বিশ্বাসগতভাবে মূলত সার্বিক তিনভাবে বিভক্ত করা হয়ে থাকে। যথা: সত্তাগত, গুণগত ও কর্মগত তাওহীদ। সত্তাগত তাওহীদকে আবার দুইভাগে –সংখ্যাগত তাওহীদ ও সত্তার ক্ষেত্রে অবিভাজ্যতা (ও মৌলিকত্ব)– এবং কর্মগত তাওহীদকেও কর্মের উৎস ও প্রভাবগত একত্বে ভাগ করা হয়ে থাকে।  

নবুয়্যত
সূরা তওবার ৪৩ নং আয়াত ও মহানবী (সা.)-এর নিস্পাপত্ব প্রসঙ্গ

সূরা তওবার ৪৩ নং আয়াত ও মহানবী (সা.)-এর নিস্পাপত্ব প্রসঙ্গ

এ আয়াতটি ঐ সব মুনাফিকের ব্যাপারে অবতীর্ণ হয়েছিল যারা তাবুক যুদ্ধে যোগদান করতে চাচ্ছিল না। এ কারণেই তারা মহানবী (সা.)-এর কাছে এসে অজুহাত প্রদর্শন করে জিহাদে যোগদান না করার অনুমতি চায়। মহানবী (সা.)ও তাদেরকে ভালোভাবে চিনতেন এবং তাদের অবিশ্বাস এবং দুর্বল ঈমান সম্পর্কে অবহিত ছিলেন। এ কারণেই তিনি তাদেরকে মদীনা নগরীতে থাকার অনুমতি দেন। মহান আল্লাহ এ আয়াতে মহানবী (সা.)-কে ভর্ৎসনা করে বলেছেন...

কোরআনের তাফসীর
সূরা ইউনুস;(৪র্থ পর্ব)

সূরা ইউনুস;(৪র্থ পর্ব)

মহান সৃষ্টিকর্তা এক এবং অদ্বিতীয়, তার সমকক্ষ কেউ নেই। তার কোন সাহায্যকারীর প্রয়োজন নেই। তিনি বস্তুগত সব প্রয়োজনের উর্ধ্বে। কোন কিছুকেই তার সমকক্ষ হিসেবে কল্পনা করা যায় না। কোনো দেব-দেবীকে তিনি সুপারিশকারী হিসেবে নিযুক্ত করেননি। তার অনুমতি ছাড়া কেউ শাফায়াত বা সুপারিশ করার ক্ষমতা রাখে না।

কোরআনের তাফসীর
সূরা ইউনুস;(৩য় পর্ব)

সূরা ইউনুস;(৩য় পর্ব)

মানুষ যখন কোন বিপদে পড়ে, তখন যে তার প্রতিপালকের কথা বেশি স্মরণ করে তার কাছে কায়মনোবাক্যে সাহায্য চায়। তাই মানুষের উচিত বিপদমুক্ত হওয়ার পর আল্লাহর প্রতি কৃতজ্ঞ হওয়া, তার নির্দেশ মান্য করে চলা। কারণ এক্ষেত্রে অকৃতজ্ঞতা এবং উদাসীনতাই মানুষের পথভ্রষ্টতার প্রধান কারণ।

ইমাম হোসাইন (আ.)
ইমাম হোসাইন (আ.)'র কয়েকটি অমর বাণী

ইমাম হোসাইন (আ.)'র কয়েকটি অমর বাণী

হযরত ইমাম হোসাইন (আ.) ছিলেন সম্মান, দয়া, বীরত্ব, শাহাদত, মুক্তি ও মহানুভবতার আদর্শ। তাঁর আদর্শ মানবজাতির জন্য এমন এক ঝর্ণাধারা বা বৃষ্টির মত যা তাদের দেয় মহত্ত্বম জীবন, গতি ও আনন্দ। মানুষের জীবনের প্রকৃত মর্যাদা ও প্রকৃত মৃত্যুর সংজ্ঞাকে কেবল কথা নয় বাস্তবতার মাধ্যমে দেখিয়ে দিয়ে অমরত্ব দান করে গেছেন এই মহাপুরুষ। বিশেষ করে আল্লাহর পথে সর্বোচ্চ ত্যাগ ও শাহাদাতকে তিনি দিয়ে গেছেন অসীম সৌন্দর্য।

ইসলামী ব্যাক্তিত্ব
কারবালার মহাবীর হযরত আবুল ফজল আব্বাস (আ.)

কারবালার মহাবীর হযরত আবুল ফজল আব্বাস (আ.)

নবী পরিবারের পিপাসার্ত শিশুদের জন্য পানি আনতে গিয়ে হযরত আবুল ফজল আব্বাস (আ.) শত্রুর তীর বৃষ্টি উপেক্ষা করেছেন এবং বহু হামলাকারীকে জাহন্নামে পাঠিয়ে ফোরাতের সুপেয় পানি মশকে ভরতেও সক্ষম হয়েছিলেন।

ইমাম হোসাইন (আ.)
বেহেশতের সর্দার : ইমাম হোসাইন (আ.)

বেহেশতের সর্দার : ইমাম হোসাইন (আ.)

বিশ্ব নবী হযরত মুহাম্মদ (সা.)-এর প্রাণপ্রিয় দৌহিত্র,আমিরুল মুমিনীন আলী (আ.) ও নারী জাতির আদর্শ বেহেশতী নারীদের নেত্রী হযরত ফাতেমা (আ.)-এর দ্বিতীয় পুত্র ইমাম হোসাইন (আ.) চতুর্থ হিজরীর পবিত্র শাবান মাসের ৩ তারিখে বেলায়েত ও অহী অবতরণের গৃহে জন্ম গ্রহণ করেন। তাঁর পবিত্র শুভ জন্মদিন উপলক্ষে সবাইকে জানাচ্ছি প্রাণঢালা অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা।

কোরআনের তাফসীর
সূরা ইউনুস;(২য় পর্ব)

সূরা ইউনুস;(২য় পর্ব)

দুনিয়া প্রীতি বস্তগত জীবনের প্রতি প্রবল আকর্ষণ এবং পরকাল বা মৃত্যু পরবর্তী জীবনের ব্যাপারে উদাসীনতা মানুষ বা সমাজের জন্য বিপর্যয় ডেকে আনে। এই বিপর্যয়ের ফল হচ্ছে দোযখ, যা পরকালে মানুষের সামনে আগুনের মত হয়ে প্রকাশ পাবে।  

আপনার মতামত

মন্তব্য নেই
*
*

আল হাসানাইন (আ.)